সময় এখন বায়োপিকের

বলিউডে বায়োপিক নির্মাণের মৌসুম চলছে। গতানুগতিক মশলাদার ছবি ছেড়ে দর্শক এখন রুচিশীল ও জীবনধর্মী সিনেমার দিকেই ছুটছে। দর্শক চাহিদার কথা মাথায় রেখে নির্মাতারাও তাই এ ধরনের ছবি নির্মাণে আগ্রহী হচ্ছেন।

‘গান্ধী মাই ফাদার’ ‘দ্য লিজেন্ড অফ ভগত সিং’ ‘বোস: দ্য ফরগটেন হিরো’ ‘শুট আউট অ্যাট ওয়াডালা’ ‘ভাগ মিলখা ভাগ’ ও ‘দ্য ডার্টি পিকচার’-এর কথা না হয় বাদই দিলাম। গত কয়েক বছরে মুক্তি পাওয়া ছবি— কুস্তিগীর সুলতান আলী খানের জীবনী অবলম্বনে নির্মিত ‘সুলতান’, সফল অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির গল্প নিয়ে ‘এমএস ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’ এবং নব্বইয়ের দশকে সংঘটিত ইরাক-কুয়েত যুদ্ধের পটভূমিতে সাজানো ‘এয়ারলিফট’ কিংবা নানাবতি মামলার সত্যি ঘটনা নিয়ে নির্মিত ‘রুস্তম’-এর সাফল্যের দিকে তাকালেই জীবনমুখী ছবির চাহিদার ব্যাপারটা স্পষ্ট হয়ে যায়।

সেই ধারাবাহিকতায় ২০১৭-১৮ সালেও বলিউডে বেশ কিছু বায়োপিক ছবি আসার কথা রয়েছে। চলুন, কোন কোন বায়োপিক আসছে চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক।

সঞ্জয় দত্ত’র বায়োপিক

আগামী দু’বছরে বলিউডে যে সব বায়োপিক আসছে, তার মধ্যে সবচেয়ে প্রতিক্ষীত হচ্ছে— সঞ্জয় দত্ত’র বায়োপিক। রাজকুমার হিরানীর পরিচালনায় ওই বায়োপিকের নাম এখনো নিশ্চিত করা হয়নি। ‘খলনায়ক’ সঞ্জুবাবার ভূমিকা প্লে করবেন বলিউডের আরেক হার্টথ্রুব রণবীর কাপুর। ইতোমধ্যে নিজের ওজন বাড়িয়ে বি-টাউনের সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন তিনি। সিলভার স্ক্রিনে সঞ্জয়কে জীবন্ত করে তুলতে হিরানির প্রচেষ্টার কোন কমতি নেই। এরইমধ্যে ভাইরাল হওয়া রণবীরের কিছু স্টিল ছবি দেখে দর্শকদের মধ্যে দারুণ উৎসাহ তৈরি হয়েছে।

জানা গেছে, সঞ্জয় দত্তের বাবা-মায়ের গল্প, তাঁর শৈশব এবং বড় হয়ে ওঠা, মাদকাসক্ত এবং রিহ্যাব, তিন-তিন বার বিয়ে, তাঁর অপরাধ জীবন ও বিচারপর্ব থেকে শুরু করে হাজতবাস, মুক্তি— একে একে অন্ধকার জীবন থেকে খোলা আকাশে বেরিয়ে আসার সব গল্পরই দেখা মিলবে ওই সিনেমাতে।

ছবির চিত্রনাট্য লিখছেন অভিজাত জোশি ও রাজ কুমার হিরানি নিজেই। সঞ্জয়ের বাবা সুনীল দত্তের চরিত্রে দেখা যাবে পরেশ রাওয়ালকে এবং মা নার্গিসের ভূমিকায় অভিনয় করবেন মনীষা কৈরালা। ২০১৮’র মার্চে রিলিজ হবে বহুল প্রত্যাশিত এ ছবিটি।

দ্য এক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকে নিয়ে সঞ্জয় বড়ুয়ার লেখা বই ‘দ্য এক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’ অবলম্বনেই নির্মিত হবে এ সিনেমাটি। পরিচালনা করছেন বিজয় রত্নাকর গুট্টে। প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকায় দেখা যাবে দাপুটে অভিনেতা অনুপম খেরকে। ছবির চিত্রনাট্য লেখার দায়িত্ব নিয়েছেন জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত পরিচালক এইচ মেহেতা। সিনেমার ফার্স্ট লুক পোস্টার ইতোমধ্যে প্রকাশ হয়েছে। ছবিটি আগামী লোকসভা নির্বাচনের আগে ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

পদ্মাবতী

চিতোরের রাণী পদ্মাবতীর রূপের কথা শুনেই তাঁকে দেখতে দিল্লি থেকে চলে এসেছিলেন সুলতান আলাউদ্দিন খিলজি। রাজপুতদের সবচেয়ে শক্ত ঘাঁটি রাজস্থানে গিয়ে তিনি বুঝতে পারলেন, দুর্গটি এতই সুরক্ষিত যে সেখানে হামলা করা খুব একটা বুদ্ধিমানের কাজ হবে না। তাই, পদ্মাবতীর স্বামী রানা রাওয়াল রতন সিংকে সুলতান তাঁর দুর্গে ডেকে পাঠালেন। এবং আবদার করলেন— তাঁর অপূর্ব সুন্দরী স্ত্রীর সঙ্গে একটিবারের জন্য দেখা করতে চান। প্রতাপশালী খিলজির হাত থেকে বাঁচতে স্বামী রতন সিংয়ের সেই আবদার পূরণ করা ছাড়া আর কোন উপায় ছিল না। যাই হোক, রাণীর রূপের এক ঝলক দেখা মাত্রই তাঁর প্রেমে মাতোয়ারা হয়ে যান সুলতান। যেকোন মূল্যে রাণীকে তার চাই-ই চাই।

ঐতিহাসিক এই কাহিনির ওপরই নির্মিত হচ্ছে সঞ্জয় লীলা বানসালির পরবর্তী ছবি ‘পদ্মাবতী’। নাম ভূমিকায় অভিনয় করছেন বলিউড ডিভা দীপিকা পাড়ুকোন। সম্প্রতি, প্রকাশিত হয়েছে ‘পদ্মাবতী’ সিনেমায় দীপিকা পাড়ুকোনের রাজকীয় লুক। স্বামী রাওয়াল রতন সিং রূপে শহীদ কাপুরের লুকও দেখা গেছে।

দেবদাস, রাম-লীলা, বাজিরাও মাস্তানি-সহ বেশ কিছু ছবি দিয়ে সঞ্জয় লীলা বানসালি ইতোমধ্যে বাজিমাৎ করেছেন, তাই এ ছবি নিয়ে সিনেমাপ্রেমিদের মনে প্রত্যাশার পারদ যেন কিছুতেই নিচে নামছে না। এই বছরের ডিসেম্বরে মুক্তি পাবে সিনেমাটি। ‘পদ্মাবতী’র প্রধান তিন অভিনয়শিল্পী হলেন— দীপিকা পাড়ুকোন, রণবীর সিং ও শহিদ কাপুর।

 

মোগুল

দিল্লির এক সাধারণ ফলের রস বিক্রেতার ঘরে জন্মেছেন গুলশান কুমার। পরবর্তীতে নানা চড়াই-উতরাই পেরিয়ে নিজেকে বলিউড সঙ্গীতাঙ্গনের সবচেয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন। গড়ে তুলেছিলেন বিখ্যাত রেকর্ডিং প্রতিষ্ঠান ‘টি সিরিজ’। তার হাত ধরেই নব্বইয়ের দশকে হিন্দি মিউজিকে এক নতুন অধ্যায় সূচিত হয়। ১৯৯৭ সালে মুম্বাইয়ের এক মন্দিরে প্রকাশ্য গুলি করে হত্যা করা হয় তাকে।

এই হত্যাকাণ্ড এবং তার পুরো জীবন অবলম্বনে তৈরি হচ্ছে নতুন সিনেমা ‘মোগুল’। মূল চরিত্রে অভিনয় করবেন বলিউড ‘খিলাড়ি’ অক্ষয় কুমার। ছবিটি পরিচালনা করছেন ‘জলি এলএলবি ২’ খ্যাত সুভাষ কাপুর। এই ছবিও ২০১৮ সালে আসার কথা।

সাইনা

মুম্বাইয়ের ডন দাউদ ইব্রাহিমে বোন ‘হাসিনা’র বায়োপিকে কাজ করেছিলেন শক্তি কাপুর কন্যা শ্রদ্ধা কাপুর। কিছুদিন আগে সিনেমাটি রিলিজ করেছিল। বক্স অফিসে তেমন সুবিধা করতে না পারলেও এবার আরেকটি বায়োপিকে কাজ করার ঘোষণা দিয়েছেন শ্রদ্ধা। নতুন এ ছবিটি ভারতের ‘পদ্মভূষণ’ প্রাপ্ত ব্যাডমিন্টন তারকা সাইনা নেহওয়ালের জীবনী অবলম্বনে নির্মিত হবে। যিনি ২০১২’র লন্ডন অলিম্পকে ব্রোঞ্জ মেডেল জিতেছিলেন। অমল গুপ্তের পরিচালনায় এ ছবি আগামী বছর মুক্তি পাবে।

ঝালকি

কৈলাশ সত্যার্থী— ভারতের মধ্যপ্রদেশে জন্মগ্রহণকারী বিশিষ্ট শিশু অধিকার কর্মী ও নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী। নব্বইয়ের দশক থেকে যিনি শিশু শ্রমের বিরুদ্ধে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন। পেশায় ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার হলেও ১৯৮৩ সালে তিনি গড়ে তোলেন ‘বাচপন বাঁচাও আন্দোলন’ বা ‘শৈশব রক্ষা আন্দোলন’ নামের একটি সংস্থা। ২০১৪ সাল পর্যন্ত ১৪৪ দেশ থেকে আশি হাজারেরও বেশি সংখ্যক শিশুকে ক্রীতদাসত্বের হাত থেকে মুক্ত করেছেন এবং একই সাথে তাদের পুণর্বাসন ও শিক্ষা-দীক্ষারও ব্যবস্থাও করেছেন।

এবার এই ‘নোবেল লরিয়েট’-এর জীবনী নিয়েও নির্মিত হচ্ছে বায়োপিক। মূল চরিত্রে আছেন অভিনেতা বোমান ইরানি। ছোট একটি মেয়ে তার হারানো ভাইকে খোঁজার গল্পকে ঘিরেই মূলত ছবির কাহিনী আবর্তিত হবে। ছবিটি নির্মাণ করছেন পরিচালক ব্রহ্মানন্দ সিং।

রাকেশ শর্মা’র বায়োপিক

‘দাঙ্গাল’ ছবিতে মহাবীর সিং ফোগাতের ভূমিকায় তার অনবদ্য অভিনয় পুরো ভারতজুড়ে সাড়া ফেলে দিয়েছিল। ছবিটি তাকে ক্রিটিকদের প্রশংসা ও বক্স অফিস সাফল্য— দুটোই এনে দিয়েছিল। তিনি— বলিউডের ‘মিস্টার পারফেকশনিস্ট’ আমির খান। জানা গেছে, এরই মধ্যে ছবিটির আয় ছাড়িয়েছে ৭০০ কোটি রুপি।

এবার আরো একটি বায়োপিকে অভিনয় করতে যাচ্ছেন আমির খান। ভারতের প্রথম নভোচারী রাকেশ শর্মার জীবনীর ওপর ভিত্তি করে নির্মিত হওয়া বায়োপিকের প্রধান চরিত্রে অভিনয় করবেন তিনি। তার স্ত্রী হিসেবে স্ক্রিন শেয়ার করবেন ‘দাঙ্গাল’ খ্যাত ফাতেমা সানা শেখ।

ছবিটি যৌথভাবে প্রযোজনা করবেন সিদ্ধার্থ রায় কাপুর, রোন্নি স্ক্রিবলা ও আমির খান নিজেই। মহেশ মাথাই পরিচালিত এ সিনেমার নাম এখনো চুড়ান্ত হয়নি। তবে, ‘স্যালুট’ অথবা ‘সারে জাহান সে আচ্ছা’ রাখার কথা শোনা যাচ্ছে।

মনিকর্ণিকা: দ্য কুইন অব ঝাঁসি

ঔপনিবেশিক ব্রিটিশ শাসনের বিরুদ্ধে আজীবন যুদ্ধ ঘোষণা করেছিলেন ঝাঁসির রাণী লক্ষ্মীবাঈ। ইতিহাসের পাতায় যার নাম আজও স্বর্ণাক্ষরে লেখা। এই মহারাণীর জীবনী নিয়ে ‘মনিকারনিকা :দ্য কুইন অব ঝাঁসি’ শিরোনামে বায়োপিক নির্মাণ করতে যাচ্ছেন পরিচালক কেতন মেহতা। ছবির মূল ভূমিকায় থাকছেন ‘কুইন’ খ্যাত অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। ছবিতে তলোয়ার হাতে তাকে একজন যোদ্ধা হিসেবে দেখা যাবে। নিঃসন্দেহে ছবিটি কঙ্গনার বায়োগ্রাফিতে আরও একটি অনন্য সংযোজন হিসেবে যোগ হবে।

ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন ‘বাহুবলি’ ও ‘বাজরঙ্গি ভাইজান’ খ্যাত কেভি বিজয়েন্দ্র প্রসাদ। জানা গেছে, ‘মণিকর্ণিকা’ ছবির কাজ নিয়ে আপাতত পুরোদমে ব্যস্ত ৩১ বছর বয়সী এ অভিনেত্রী। ছবিটি ২০১৮ সালে রিলিজ করবে।

আনন্দ কুমার-’র বায়োপিক

‘যোধা আকবার’ সিনেমায় সম্রাট আকবরের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন হৃত্বিক রোশন। তবে ওটা মুঘল সম্রাটের সরাসরি বায়োপিক ছিল না। কিন্তু এবার সত্যিই বায়োপিকে অভিনয় করতে যাচ্ছেন বলিউডের এই হার্টথ্রব। বিহারের এক অখ্যাত গনিত শিক্ষকের ভূমিকায় দেখা যাবে তাকে।

বিহার অঞ্চলের ৩০ জন গরীব ছাত্রকে বিনা পারিশ্রমিকে আইআইডি-জেইই প্রশিক্ষণ দিয়ে প্রবেশিকায় পাশ করতে সর্বাত্মক সাহায্য করেছিলেন আনন্দ কুমার। এই মহৎ কাজটি রাতারাতি তাকে পুরো দেশজুড়ে পরিচিত করে তোলে। জানা গেছে, উচ্চতর শিক্ষার জন্য ছাত্রাবস্থায় তিনি ডাক পেয়েছিলেন কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও। কিন্তু অর্থাভাবে বিদেশে মাটিতে আর পড়তে যাওয়ার সুযোগ হয়ে ওঠেনি।

আদর্শবান এই শিক্ষকের জীবনী নিয়েই নির্মিত হচ্ছে হৃত্বিকের পরবর্তী ছবি। নাম ঠিক না হওয়া ওই ছবিতে তার সহশিল্পী থাকছেন ‘ব্যাং ব্যাং’ খ্যাত তারকা ক্যাটরিনা কাইফ। তবে, আনন্দ কুমারের ‘সুপার থার্টি’ প্রোগ্রামের নামেই ছবির নামকরণ করার সম্ভাবনা আছে। ছবিটি পরিচালনা করছেন বিকাশ বেহল। মুক্তির তারিখ এখনো নির্ধারণ হয়নি।

পি ভি সিন্ধু’র বায়োপিক

পি ভি সিন্ধু— অলিম্পিকে পদক জয়ী ভারতের পঞ্চম মহিলা। গত ১২০ বছরের মধ্যে প্রথম ভারতীয় মহিলা ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় হিসেবে অলিম্পিকে যিনি নিজেকে ফাইনাল পর্যন্ত নিয়ে যেতে পেরেছেন, এবং রুপোর পদক জিতেছেন। রিও অলিম্পিকে দুর্ধর্ষ লড়াইয়ের শেষের দিকে তিনি স্পেনের ক্যারোলিনার কাছে হেরে যান।

এই ভারতীয় ব্যাডমিন্টন তারকার জীবনী নিয়ে ছবি নির্মাণ করতে যাচ্ছেন বলিউড অভিনেতা ও প্রযোজক সোনু সুদ। ছবির স্বত্বও কিনে নিয়েছেন। ইতোমধ্যে চিত্রনাট্য লেখা কাজ সম্পন্ন  হয়ে গেছে। সিন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করার কথা রয়েছে ব্যাডমিন্টন কিংবদন্তি প্রকাশ পাড়ুকোন কন্যা দীপিকা পাড়ুকোনের। ছবিটি ২০১৮ সালে সিনেমা হলে আসবে।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।