ষোড়শ শতকের আইফোন নাকি স্রেফ আয়না!

হঠাৎ করে যদি জানতে পারেন, সেই ষোড়শ শতকেও আইফোন ছিল? কেউ যদি এসে বলে, ১৯৩৭ সালে বসে কেউ একজন নেটিভ আমেরিকানের হাতে আইফোন আছে এমন একটা ছবি এঁকেছিল?

সত্য-মিথ্যা পরের আলোচনা, ৮০ বছর আগে আঁকা এক পেইন্টিংয়ে এক ব্যক্তিকে আইফোনের মত কিছু একটা ধরে রাখতে দেখেই এই আলোচনার সূত্রপাত।

তার মানে কি সাত যুগ আগেও স্মার্টফোনের অস্তিত্ব ছিল? যদিও, ঐতিহাসিক ড্যানিয়েল ক্রাউন এই প্রশ্নটা স্রেফ হেসে উড়িয়ে দিলেন। তার দাবী আইফোন-টাইফোন কিছু নয়, ওটা স্রেফ একটা আয়না।

ছবিতে গোলাপী পোষাকে যাকে দেখা যাচ্ছে তিনি হচ্ছেন উপনিবেশ জমানার ইংরেজ ব্যবসায়ী উইলিয়াম পিনচন। ঐতিহাসিকদের দাবী ওই আয়না বা কাচের ‍টুকরা টা পিনচনের ছিল।

তখন, এই আয়না সাথে থাকাকে সম্পদশালী  ও মর্যাদার প্রতীক হিসেবে মনে করা হত, জানান নেটিভ কালচার বিশেষজ্ঞ এডউইন এল. ওয়েড। আর কাচটা চকচক করছিল বলেই তাতে আগ্রহী হয় ওই নেটিভ আমেরিকান।

ওয়েড বলেন, ‘ওই সময় আয়নার অস্তিত্ব ছিল। এমন আয়তাকার ধরণেরই হত!’ বোঝা গেল, ষোড়শ শতকের স্মার্টফোন ও আইফোনের ধারণাটা স্রেফ ফেসবুকে পাওয়া গুজবের মত বিষয়। সর্বস্তরে আয়নার ব্যবহার শুরু হয় সপ্তদশ শতকে এসে।

ছবিটির শিল্পী ইতালির আমবের্তো রোমানো ১৯৮২ সালে মারা যান। তিনি অবশ্য জীবদ্দশ্যায় কখনো ছবিটির ব্যাপারে খোলাসা করেননি।

– ডেইলি মেইল ও বিয়িং ইন্ডিয়ান অবলম্বনে

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।