শাহরুখের সাফল্য মা দেখতেই পারেননি

প্রত্যেক বাবা-মা’ই চান নিজের সন্তানকে সফল হতে দেখতে। নিজের সফলতা বাবা-মাকে দেখানোর ইচ্ছাও প্রত্যেক সন্তানেরই থাকে। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস, অনেকের পক্ষেই তা সম্ভব হয়না। আর সেই অনেকেরই একজন, বলিউড বাদশা শাহরুখ খান। কিং খানের অসামান্য অর্জন এবং স্মরণীয় কাজগুলো দেখে যেতে পারেননি তাঁর বাবা-মা।

বলিউডে আসার আগে কিং খান মঞ্চ নাটক ও টিভিতে কাজ করেছিলেন। সার্কাস, ফৌজি-র মতো অনেক বিখ্যাত টিভি সিরিয়ালে অভিনয় করেছিলেন তিনি। সম্প্রতি শাহরুখের ১৯ বছর পুরনো এক আলাপচারিতা ঘেঁটে জানা যায় তাঁর এক অপূর্ণ ইচ্ছের কথা।

তিনি তাঁর অভিনীত ‘সার্কাস’ টিভি সিরিয়ালের প্রথম পর্বটি মা লতিফ ফাতিমা খানকে দেখাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তখন তাঁর মা অত্যন্ত অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে শয্যাশায়ী থাকায় টিভিতে শাহরুখকে দেখে চিনতে পারেননি।

শাহরুখ খানের বাবা-মা ও বড় বোন

প্রয়াত ফারুখ শেখের অনুষ্ঠান ‘জিনা ইসি কা নাম হ্যাঁয়’-এ শাহরুখ ঘটনাটির স্মৃতিচারণ করছিলেন, সাথে ছিলেন পরিচালক আজিজ মির্জা। আজিজ মির্জা পরিচালিত ‘রাজু বান গায়া জেন্টেলম্যান’, ‘ইয়েস বস’ এবং ‘চলতে চলতে’ সিনেমাগুলোতে অভিনয় করেছিলেন শাহরুখ খান। এছাড়া ‘সার্কাস’ সিরিয়ালটিরও পরিচালক ছিলেন আজিজ।

তাঁর মায়ের সেই ঘটনা এবং আজিজ মির্জাকে নিয়ে বলছিলেন শাহরুখ, ‘আজিজের সাথে আমার পরিচয় অনেক দিনের। আমি তার সাথে ‘সার্কাস’ সিরিয়ালে কাজ করেছি, তারও আগে ‘ওয়াগলে কি দুনিয়া’-তে একটি পর্বে কাজ করেছিলাম। ‘সার্কাস’ আমার প্রথম বড় মাপের সিরিয়াল ছিল, আর সেটির প্রথম পর্ব মাকে দেখাতে চেয়েছিলাম। আমার মনে পড়ে, সিরিয়ালের প্রথম পর্বটি নিয়ে আজিজ দিল্লীতে এসেছিল। আমার মা তখন হাসপাতালে ভর্তি। সেখানেই বিশেষ অনুমতি নিয়ে মাকে টিভিতে প্রথম পর্বটি দেখাই, কিন্তু খুবই অসুস্থ থাকায় মা আমাকে চিনতে পারেননি।’

নিজের ছেলেকে না চিনলেও লতিফ ফাতিমা খান ঠিকই চিনেছিলেন দিলীপ কুমারকে। শাহরুখ বলেন, ‘মা শুধু দিলীপ কুমারকে চিনতে পেরেছিলেন। যখন মা আমাকে মোটেই চিনতে পারেননি, আমার মনে আছে, তখন আজিজ আমার মাকে বলেছিল, আপনি নিশ্চিন্ত থাকুন, ইনশাআল্লাহ শাহরুখ-ও একদিন দিলীপ কুমারের মতো বিখ্যাত অভিনেতা হবে।’

‘সার্কাসে’র প্রথম পর্বটি ১৯৮৯ সালে প্রচারিত হয়েছিল। আর শাহরুখ খানের মা লতিফ ফাতিমা খান ১৯৯০ সালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। আজিজ মির্জার কথা সত্যি হয়েছে। শাহরুখ এখন ‘বলিউড বাদশাহ’। কিন্তু, সেই সাফল্য মা-ই দেখে যেতে পারলেন না!

বলিউড বাবল অবলম্বনে

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।