মডেলিংয়ে তিনি আজো সবার আদর্শ

নব্বই পরবর্তী প্রজন্মকে যদি জিজ্ঞাসা করা হয়, মডেলিং জগতে আপনার আদর্শ কে? কিংবা আপনার সবচেয়ে প্রিয় মডেল কে? – চোখ বন্ধ করে নির্দ্ধিয়ায় একটি নামই আসবে। সেই নব্বই দশকে ‘লোনলি ডে, লোনলি নাইট’, ‘রুপসীর রেশমীর চুলে’ থেকে ‘তোমার জন্য মরতে পারি’ কিংবা ‘নিশিথে কল কইরো আমার ফোনে’ – বিজ্ঞাপনের জগতে এই শীর্ষ গান গুলি এনেছিল ভিন্নমাত্রা।

মডেলিং জগতে ছিল তাঁর একচ্ছত্র আধিপত্য। শুধু মাত্র মডেলিং এর বদলৌতে বাংলাদেশের অন্যতম স্বনামধন্য ব্যক্তিত্ব, তিনি মডেলিং জগতের রাজপুত্র খ্যাত জনপ্রিয় তারকা নোবেল।

পুরো নাম আদিল হোসেন নোবেল, চট্টগ্রাম থেকে পড়াশোনার পাঠ চুকিয়ে ঢাকায় এসে এক বড় বোনের পরামর্শে ফ্যাশন জগতের সাথে জড়িয়ে পড়েন। সেই সূত্রেই বিজ্ঞাপন যাত্রা। আফজাল হোসেনের নির্দেশনায় প্রথম বিজ্ঞাপন ছিল কোমল পানীয় স্প্রাইটের। কিন্তু দূর্ভাগ্যবশত সেটার সম্প্রচারই হয়নি।

পরবর্তীতে একই নির্দেশকের আজাদ বলপেনের বিজ্ঞাপন করে বেশ আলোচিত হন। দেখতে সুদর্শন হওয়ায় মডেলিং জগতে রাতারাতি তারকা হতে আরো বেশি সহজতর হয়ে যায়। একে একে পাকিজা শাড়ী, আরসি কোলা, সিটিসেল, এইচআরসি চা, ড্যানিশসহ বহু বিজ্ঞাপন করেন।

তবে তাকে জনপ্রিয়তার শীর্ষে আনতে সহায়ক করে ‘কেয়া’ টয়লেট্রিজ সামগ্রীর বিজ্ঞাপন গুলো। মডেলিং জগতেও যে জুটি গড়া যায় – সেটাও তিনি দেখিয়েছিলেন। জুটি বেঁধেছিলেন মডেলিং জগতের সম্রাজ্ঞী মৌয়ের সাথে। এছাড়া তানিয়া, সুইটি থেকে তিশা সবার সাথেই দারুণ মানিয়ে যেতেন।

মডেলিং জগতের বাইরে অভিনয়েও তিনি সুপরিচিত, তবে তা করেছেন নিতান্তই অল্প সংখ্যক।টেলিভিশনে প্রথম প্যাকেজ নাটক ‘প্রাচীর পেরিয়ে’ ছিল প্রথম নাটকে অভিনয়। এরপর উল্লেখযোগ্য নাটকের মধ্যে কুসুম কাঁটা, ছোট ছোট ঢেউ, তাহারা, প্রিমা তোমাকে,শেষের কবিতার পরের কবিতা, বৃষ্টি পরে, নি:সঙ্গ রাধাচূড়া, তুমি আমাকে বলোনি, হাউজ হাজব্যান্ড, সবুজ আলপথে একদিন অন্যতম।

বর্তমানে ঈদ উৎসবে মাঝে মাঝে নাটক করেন, সর্বশেষ বিজ্ঞাপন করেছিলেন ‘রবি’র। সুদর্শন এই তারকার চলচ্চিত্রের প্রতি বরাবরই ছিল অনীহা। সাড়া জাগানো ছবি ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ এর অফার ছেড়ে দিয়েছিলেন তিনি। কে জানে, চলচ্চিত্রে নাম লেখালে হয়তো দর্শক পেতো বাংলা চলচ্চিত্রের ইতিহাসে অন্যতম সেরা সুদর্শন নায়ককে।

ব্যক্তিজীবনে তিনি সেই নব্বই দশক থেকে বিপণন কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করছেন। বর্তমানে আছেন টেলিকম কোম্পানি রবি আজিয়াটা লিমিটেডে।

জন্ম ১৯৬৮ সালের ২০ ডিসেম্ব।  বিয়ে করেছেন প্রায় দুই দশক আগে। স্ত্রীর নাম শম্পা। রয়েছে দুইটি সন্তান। আজো তিনি নিজেকে সেই সমুজ্জ্বল ব্যক্তিত্ব হিসেবে ধরে রেখেছেন।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।