বলিউডের পরিবারতন্ত্র কতটা সফল?

বেশ কিছুদিন আগে পরিচালক করণ জোহরের জনপ্রিয় টকশো ‘কফি উইদ করণ’-এর একটি পর্বে অতিথি হয়ে এসেছিলেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। সেদিনস্বজনপ্রীতি নিয়ে নিজের আক্ষেপের কথা জানিয়েছিলেন তিনি। শুধু তাই নয়, স্বজনপ্রীতি নিয়ে অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছিলেন খোদ অনুষ্ঠানটির উপস্থাপক করণ জোহরের দিকে।

তারপর থেকেই বলিউডে এই ইস্যুতে পক্ষে বিপক্ষে কথা চালাচালি চলছে। স্বজনপ্রীতি বিতর্কে না জড়ালেও এটি অস্বীকার করার জো নেই যে, বর্তমানে বলিউডের অনেক তারকাই ইন্ডাস্ট্রিতেপ্রথম ব্রেকটি পেয়েছিলেন স্বজনপ্রীতির বদৌলতে। প্রতিভার পরিচয় দিতে পারলেও প্রভাবশালী পরিবারের সুবাদে টিকে আছেন বি-টাউনে। আর প্রতিবছরই এভাবে কেউ না কেউ ব্রেক পাচ্ছেন বলিউডে।

সোনম কাপুর

অনিল কাপুরের কন্যা। রণবীর কাপুরের বিপরীতে ‘সাওয়ারিয়া’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে আগমন তার। বক্সঅফিসে মুখ থুবড়ে পরে ছবিটি। এরপর ‘আয়শা’, ‘খুবসুরাত’ সহ আরও অনেক সিনেমায় অভিনয় করলেও দর্শক প্রত্যাশা পূরণে সফল হতে পারেননি তিনি। যদিওসম্প্রতি ‘নীরজা’ সিনেমায় তার অভিনয় প্রশংসিত হয়। তবে, বাবা অনিল কাপুরের মাধ্যমেই যে তার বলিউডে আগমন এবং অনেক ফ্লপ ছবির পরও টিকে থাকা, এটি নিয়ে কোন দ্বিমত নেই।

অর্জুন কাপুর

ছোটবেলায় এতটাই স্থুলকায় ছিলেন যে, ইন্ডাস্ট্রিতে তার ভবিষ্যৎ কল্পনা করাও ছিল দুঃসাধ্য ব্যাপার। তবে সময়ের সাথে সাথে শারিরিক গঠনে পরিবর্তন আনতে সক্ষম হন তিনি। আর প্রযোজক বাবা বনি কাপুরের সহায়তায় যশরাজের ব্যানারে ‘ইশকজাদে’-র মাধ্যমে অভিষেক হয় তার। যদিও, সাম্প্রতিক সময়ে তার করা ‘কি অ্যান্ড কা’ ও ‘টু স্টেটস’ প্রশংসিত হয়েছে। যদিও, ব্যর্থ হয়েছে ‘হাফ গার্লফ্রেন্ড’।

বরুণ ধাওয়ান

তার গল্পটাই বোধহয় সবচেয়ে সহজ। যখনই তার বাবা ডেভিড ধাওয়ান কোন সিনেমা বানান, সেটিতে ‘অটো চয়েস’ হিসেবে থাকেন তিনি। তাই চরিত্র পেতে পরিশ্রম কমই করতে হয় তার।বরুণ ধাওয়ানের ক্যারিয়ারের উত্থানে তাই তার বাবার ভূমিকা আলোচিত।

আলিয়া ভাট

ভাট বংশের নবীনতম প্রদীপ। করণ যোহরের ‘স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার’-এর মাধ্যমে অভিষেক তার। তারপর থেকেই ছুটছেন অপ্রতিরোধ্য গতিতে। ‘হাইওয়ে’, ‘ডিয়ার জিন্দেগি’-এর মতো ছবির দ্বারা দর্শক হৃদয় জয় করেছেন তিনি।

টাইগার শ্রফ

নাচ এবং মার্শাল আর্টে তার দখল সর্বজনবিদিত। কিন্তু অভিনয়ে তার দক্ষতা নেই বললেই চলে। সর্বশেষ দুটি ছবি ‘অ্যা ফ্লাইং জ্যাট’ এবং ‘মুন্না মাইকেল’ দর্শক-সমালোচক কারো কাছেই গ্রহনযোগ্যতা পায়নি। বাবা জ্যাকি শ্রফের মতো দর্শকপ্রিয়তা তার কাছে এখনো দুরাশা।

শ্রদ্ধা কাপুর

বলিউডের একসময়ের জনপ্রিয় খলনায়ক শক্তি কাপুরের মেয়ে তিনি। বাবার সূত্র ধরেই বলিউডে এসেছেন। ‘আশিকি ২’ ছবির মাধ্যমে অভিষেকেই দর্শক মাতিয়েছেন শ্রদ্ধা। তবে সৌন্দর্যে অতুলনীয় হলেও অভিনয়ে একেবারেই আনাড়ি তিনি।

আথিয়া শেঠি

‘অভিনয়টা সবাইকে দিয়ে হয়না’ – কথাটা আথিয়ার জন্য প্রযোজ্য। বাবা সুনিল শেঠির অভিনয় দক্ষতার ছিটেফোঁটাও পাননি তিনি। অভিষেক সিনেমা ‘হিরো’ বক্স অফিসে মোটেও সাড়া জাগাতে পারেনি।আর তাই আথিয়ার বলিউড ক্যারিয়ারও সেখানেই থেমে গেছে। সেই সিনেমায় ছিলেন আদিত্য পাঞ্চোলির ছেলে সুরাজ পাঞ্চোলিও।

সোনাক্ষি সিনহা

বলিউডের ‘ভাইজান’ সালমান খানের বিপরীতে ‘দাবাং’ সিনেমা দিয়ে অভিষেক হয়েছিল তার। অসাধারণ অভিনয়ে তখন সবাইকে মুগ্ধ করেছিলেন। কিন্তু তারপর থেকেই ক্যারিয়ারের সূচক নিম্নমুখী।কালেভদ্রে দু’একটি ছবি সফলতার মুখ দেখলেও বেশিরভাগ ছবির ভাগ্যেই জোটে ফ্লপের ট্যাগ। বাবা শত্রুঘ্ন সিনহা ও মা পুনম সিনহার প্রভাব তার পুরো কারিয়ারেই লক্ষ্য করা যায়। তবে এখনো বলিউডে সব আশা শেষ হয়ে যায়নি তার। আগামী ৩রা নভেম্বর মুক্তি পাচ্ছে সোনাক্ষির পরবর্তী ছবি ‘ইত্তেফাক’।

এদের বাইরে সাম্প্রতিক সময়ের জনপ্রিয় দুই নায়ক শহীদ কাপুর ও রণবীর কাপুরের কথা বলা যায়। বলা হয়, তাদের হাত ধরেই আরেক ধাপ এগিয়ে যাবে বলিউড।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।