নায়কোচিত এক খলনায়ক

মুক্তির এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও এখনো দেশজুড়ে ১২২ টি হলে চলছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’।পরিচালক দীপঙ্কর দীপনের ‘ঢাকা অ্যাটাক’ এখনো সিনেমা প্রেমীদের মোহাবিষ্ট করে রেখেছে। অন্যরকম গল্প, টানটান উত্তেজনাময় দৃশ্যায়ন, স্টারকাস্টদের মনোমুগ্ধকর পারফরমেন্স, সবমিলিয়ে ঢাকাই সিনেমাকে একটি মোমেন্টাম উপহার দিয়েছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’।

আর সাথে উপহার দিয়েছে নীল চোখের এক খলনায়ক, যার নাম তাসকিন রহমান। সাইকো-কিলার জিসানের চরিত্রে তাসকিনের অনবদ্য অভিনয় সাধারণ দর্শক থেকে সমালোচক সবাইকেই মুগ্ধ করেছে। তাঁর সংলাপ বলার ধরণ, লুক, অঙ্গভঙ্গিসহ সবকিছুই দর্শকদের বিস্মিত করেছে। ‘ঢাকা অ্যাটাক’ দেখে হল থেকে বের হওয়া প্রত্যেকটি মানুষের মুখ থেকেই ঝরেছে তাসকিনের জন্য অকুণ্ঠ প্রশংসা। শক্তিমান অভিনেতা প্রয়াত হুমায়ুন ফরীদি’র পর আরেকজন খলনায়ককে নিয়ে আশায় বুক বাঁধছেন বাংলা সিনেমার ভক্তরা।

‘ঢাকা অ্যাটাক’ সিনেমার মাধ্যমে সিনেমায় নিজের উপস্থিতি জানান দেয়া তাসকিনকে প্রথম বড় পর্দায় দেখা গিয়েছিল ১৯৯৫ সালে। শাবনুর ও আমিন খান অভিনীত ‘হৃদয় আমার’ সিনেমায় শিশুশিল্পী চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। সম্পর্কে পরিচালক তানিম রহমান অংশু’র ভাই তাসকিন রহমান ‘টাইম ক্লাউড’, ‘প্রিন্সেস’ সহবেশ কিছু নাটকেও অভিনয় করেছেন।

‘ঢাকা অ্যাটাকে’ জিসানের চরিত্রটি একাকিত্বে বেড়ে ওঠা একজন কিশোরের ভয়ংকর হয়ে ওঠার উপাখ্যান। সবাইকে দেখিয়ে দেয়ার আকুতি, ‘একজন একা মানুষ কি করতে পারে’। কৈশোর থেকেই বোমা বানাতে পারদর্শী জিসান একসময় সাইকো কিলারে পরিণত হয়। আর জিসানের চরিত্রতেই নিজের অভিনয়ের ঝলক দেখিয়ে সবার মন জয় করে নিয়েছেন তাসকিন। ক্রূর চাহনি, ভয়ানক অভিব্যক্তি আর আক্রোশের মাধ্যমে জিসানের চরিত্রটিকে পূর্ণতা দিয়েছেন তিনি।

নায়কের তুলনায় খলনায়কেরা স্বল্প স্ক্রিন টাইম পেয়ে থাকেন। কিন্তু এরমধ্যেই অনন্য অভিনয় দিয়ে দর্শকদের হৃদয়ে জায়গা করে নেয়ার কাজটি সারেন বড় পর্দার নন্দিত খলনায়কেরা। তাসকিন রহমানও নিজের সুযোগের পূর্ণ সদ্ব্যবহার করেছেন। মধ্যাহ্ন বিরতির পর স্ক্রিনে উপস্থিত হয়েও পারফরমেন্সের দিক দিয়ে ছাপিয়ে গেছেন ছবির অন্য তারকাদের। ‘ঢাকা অ্যাটাকে’ জিসান চরিত্রে তাসকিন রহমানের বাজিমাতের নেপথ্যে কৃতিত্বের দাবিদার পরিচালক দিপঙ্কর দীপনও। তাসকিনের মতো উদীয়মান একজন অভিনেতাকে ছবির মূল খল চরিত্রে অভিনয়ের জন্য নির্বাচন করার মাধ্যমে সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন দীপন।

অভিনয় ছাড়াও, বেশ ভালো ছবি আঁকতে পারেন তাসকিন রহমান। ২০১৫ সালে সিডনিতে তাঁর তৈলচিত্রের প্রদর্শনী হয়েছে। সামনে মুক্তির অপেক্ষায় আছে তাঁর অভিনীত ৩ টি ছবি। শিশু শিল্পী হিসেবে ‘হৃদয় আমার’ সিনেমায় কাজ করেছেন। কাজ করেছেন কিছু মিউজিক ভিডিওতেও। তানিম রহমান অংশু পরিচালিত ‘আদি’, আশিকুর রহমানের ‘অপারেশন অগ্নিপথ’ এবং জায়েদ রিজওয়ানের ‘মৃত্যুপুরী’ তে দেখা যাবে তাঁকে।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।