ট্যাক্সি মনে করে পুলিশের গাড়িতে ড্রাগ ডিলার, অত:পর…

কতটা নেশায় বুদ হয়ে থাকলে পুলিশের গাড়িকে ট্যাক্সি মনে করে উঠে পড়া সম্ভব! ঘটনা এখানে শেষ হয়ে গেলেও হত, ওই ব্যক্তির কাছে যদি ১০০ টি গাঁজার জয়েন্ট থাকে, তাহলে চোখ রীতিমত ছানাবড়া হয়ে যাওয়ারই কথা।

এমনই চোখ কপালে তুলে দেওয়ার মত ঘটনা ঘটেছে ডেনমার্কের কোপেন হেগেনে। এক নেশাখোর ভুল করে ট্যাক্সির জায়গায় ডেনিশ পুলিশের গাড়িতে চড়ে বসেন।

আর তাতেই তার কপাল পোড়ে। সাথে ১০০ টি গাজার জয়েন্ট পাওয়া যায়, পুলিশ তাকে তৎক্ষনাৎ গ্রেফতার করে বসে। এখন তার ঠাঁই হয়েছে যথার্থ স্থানে – জেল খানায়।

কোপেনহেগেনের পুলিশ টুইটে বিস্তারিত লিখেছে, ‘গত রাতে ক্রিশ্চিয়ানার এক মাদক ব্যবসায়ী খুব দ্রুত বাড়ি যাবেন বলে ট্যাক্সিতে চড়ে বসেন। কিন্তু, ভেতরে তার জন্য অপেক্ষা করছিল বিস্ময়। কারণ, একটু পরই সে বুঝতে পারে যে ওটা ট্যাক্সি নয়, পুলিশের গাড়ি ছিল। পুলিশও এই ভুল বোঝাবুঝিতে নাখোশ হয়নি। কারণ, তার কাছে যে ১০০ টি গাঁজার জয়েন্ট পাওয়া গেছে।’

পরবর্তী টুইটে জানানো হয় যে, ওই ব্যক্তিকে জেলে পাঠানো হয়েছে। ডেনিশ পুলিশ বরাবরই স্থানীয় মাদকের ব্যবসা দমনে খুবই সচেষ্ট। জায়গাটি মানে ক্রিশ্চিয়ানা অঞ্চল আগে ছিল সেনাবাহিনীর ব্যবহৃত জায়গা। ১৯৭১ সালে জায়গাটি সিভিলিয়ানদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

– দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট অবলম্বনে

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।