কোথা থেকে এল কিস ডে… রোজ ডে… হাগ ডে?

রোজ ডে, প্রপোজ ডে, চকলেট ডে, টেডি ডে, প্রমিজ ডে, হাগ ডে, কিস ডে – স্যোশাল মিডিয়ার যুগে এই দিবসগুলোর নাম তরুণদের অজানা নয়। ফেব্রুয়ারির ৭ থেকে ১৩ ফেব্রুয়ারি এই দিবস গুলো পালিত হয় বিশ্বব্যাপী।

উপমহাদেশ এই দিবসগুলো পালনে এখনো নবীন। তবে, ফেসবুক-ইন্সটাগ্রামে নিত্যনতুন এই দিবসগুলো নিয়ে নানা রকম ট্রল দেখায় নাম গুলোর সাথে কম বেশি সবাই পরিচিত হয়ে গেছে। প্রশ্ন হল, এই দিবসগুলোর সূত্রপাত হল কিভাবে?

এই দিনগুলোর শেষে আসে ভ্যালেন্টাইন ডে। ৭ থেকে ১৪ – পাশ্চাত্যে একে বলা হয় ভ্যালেন্টাইন্স উইক। এখানে এই সাত দিনে একটি ভালবাসার সম্পর্ক শুরু থেকে পরিণতির পথে হাঁটে।

মূলত এই সপ্তাহটি উদযাপন করা হয় সেইন্ট ভ্যালেন্টাইনের সৌজন্যে। তৃতীয় শতকে রোমানরা ভালবাসার দায় ‍দু’জনকে মৃত্যুদণ্ড দেয়। তার একজন হলেন সেইন্ট ভ্যালেন্টাইন। তার প্রেমকে মনে রাখার জন্য প্রতি বছর পালন করা হয় এই ভালবাসার সপ্তাহ।

প্রাচীন রোমে, সৈনিকদের বিয়ে করা নিষিদ্ধ ছিল। তবে, এই সাধু ভ্যালেন্টাইন শাসকদের নির্ধারিত সেই নিয়ম ভঙ্গ করে কয়েকজন সৈনিকের বিয়ে দিয়েছিলেন। তাঁই কারাবরণ করতে হয়, এমনকি মৃত্যুকেও আলিঙ্গন করতে হয়।

তাঁর স্মরণ এই উদযাপন হয়ে আসছে পঞ্চম শতক থেকে। শুরুতে ভালবাসা দিবস কিংবা ভালবাসা সপ্তাহ ছিল কেবলই খ্রিষ্ট ধর্মাবলম্বীদের একটি উদযাপন। কালক্রমে এটা ছড়িয়ে পড়ে সারাবিশ্বে।

আর এখন এই সময়টা কেবল ভালবাসার মধ্যে সীমাবন্ধ নেই। এই সপ্তাহটিকে কেন্দ্র করে চলে বিপুল অর্থকড়ির ব্যবসা। এর মধ্যে যেন হারিয়ে গেছে কেবল নিখাঁদ ভালবাসাই!

– ইন্ডিয়া.কম অবলম্বনে

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।