ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বাস: উল্টোপথে গেলে রুটই বন্ধ!

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বহন করা বাসের সিগনাল ভঙ্গ করে ‘রং সাইড’ দিয়ে বা উল্টোপথে যাওয়ার বিস্তর নজীর পাওয়া যায়। এই নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে অনেক সমালোচনাও হচ্ছে। তবে, এই সমালোচনা বন্ধে এগিয়ে এল খোদ ঢাবি কর্তৃপক্ষ।

এখন থেকে কোনো রুটের বাস উলটোপথে গেলে বা কোন ট্রাফিক আইন অমান্য করলে সেই রুটের বাস সাময়িক বন্ধ করে দেওয়া হবে, এমনটাই সিদ্ধান্ত হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ সভায়। জানালেন ঢাবির প্রক্টর এ এম আমজাদ আলী

তিনি বলেছেন, ‘আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের যাতায়াত কর্তৃপক্ষকে শক্তভাবে নির্দেশনা দিয়েছি যেন সবরকম টাফিক আইন মেনে চলা হয়। কোন বাসের বিরুদ্ধে আইন ভঙ্গের প্রমাণ পাওয়া গেলে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া হবে এবং সেই রুটের বাস সাময়িক ভাবে বন্ধ করে দেয়া হবে। কর্তৃপক্ষের কোন রুটের বাস পুরোপুরি উঠিয়ে নেয়া সম্ভব নয়। কারণ হাজার হাজার শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসের ওপরই যাতায়াতের জন্য নির্ভরশীল।’

যখন উলটোপথে যেতে ছাত্রদের ড্রাইভার কে বাধ্য করা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হয় তখন তিনি বলেন ড্রাইভাদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে যেন ছাত্রদের কোন অবৈধ দাবি মেনে না নেয় এবং ট্রাফিক আইন মেনে চলে। আমজাদ আলী আরও জানান যে ঢাবি কর্তৃপক্ষ ট্রাফিক পুলিশদের সাথে যোগযোগ করে নিশ্চিত করবেন যেন সঠিক রুট মেনে চলে বাসগুলো।

এই সিদ্ধান্তে শিক্ষার্থীদের মাঝে মিশ্র অনুভূতির সৃষ্টি হয়েছে। কেউ কেউ মনে করেন সঠিক নিয়ম মানতে গিয়ে সময়মতো ক্লাস বা পরীক্ষায় উপস্থিত থাকা অসম্ভব হয়ে পড়বে। প্রায় ৮০টি বাস বিভিন্ন সময়ে ২১টি ভিন্ন রুটে ঢাবি শিক্ষার্থীদের আনা-নেওয়া করে।

জানিয়ে রাখা ভাল, এর আগে গত ১৭  জুলাই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যাওয়ের কিছু শিক্ষার্থী রাজধানীর বাংলা মোটর মোড়ে উলটো পথে বাস যাওয়ার সময় ট্রাফিক পুলিশ বাধা দিলে তাকে ধরে মারধোর এবং লাঞ্ছিত করে।

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।