অভিনব প্রি-ওয়েডিং ফটোশুট: ভোজনেই আনন্দ

নি:সন্দেহে বিয়ে মানুষের জীবনের সবচেয়ে সুন্দর মুহূর্তগুলোর একটি। নিজের বিয়ে নিয়ে একজন মানুষের পরিকল্পনার কোনো অন্ত থাকে না। বিয়ের দিনটিকে ঘিরে তিনি দেখেন হাজারো স্বপ্ন।

কি পোশাক পড়বেন, কিভাবে নিজেকে উপস্থাপন কররেন, আর সে জন্য নিজের ওজন কমাবেন – এসব নিয়ে ভেবে ভেবে আর পরিকল্পনা করেই বিয়ের আগের দিন গুলো কাটিয়ে দেন|

তবে, এর ব্যতিক্রমও আছে। যেমনটা করেছেন ভারতের ঋতিকা ও হরিন্দর। বিয়ের আগে নিজের ওজন কমিয়ে ফিট করে ফেলতে হবে এই মানসিকতাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে রীতিমত ভোজন অভিজানে নেমে পড়েছেন এই প্রেমিক যুগল।

অথচ, বিয়ের আর সপ্তাহখানেক সময়ও বাকি নেই।

অভিনব এক ‘প্রি ওয়েডিং ফটোগ্রাফি’ তাদের দেখা গেছে তাদের। সেখানে আর কিচ্ছু না, ভাগাভাগি করে খাবার খেয়েছেন তারা। তাদের বিশ্বা হল – ‘যে দম্পতি এক সাথে খাবার খায়, তারা সময় সময় সুখে থাকে।’

হবু বর হরিন্দর যেমন বলেই দিলেন, তাদের সম্পর্কের পেছনে খাবারের বিরাট অবদান, ‘আমাদের সম্পর্কটা গড়ে ওঠার পেছনে খাবারদাবারের ভূমিকা ভুলে গেলে চলবে না। আমাদের সব সুন্দর স্মৃতিগুলোর সাথেই কোনো না কোনো খাবার জড়িত। আমরা মনে করি, যারা একে অপরকে ভালবাসে তারা নিজেদের মধ্যে খাবার শেয়ার করে।’

তারা দু’জনে এক সাথে মোটা হতে চান। আর এই ব্যাপারে দু’জনেই একমত। বাড়ির সবাই অবশ্য বলে বলে কান ঝালাপালা করে ফেলেছে, ‘সামনে বিয়ে… এবার তো শরীরের দিকে নজর দাও!’ সেই কথা এক কান দিয়ে ঢুকে আরেক কান দিয়ে বের হয়ে যায়।

নাহ, এই হবু দম্পতি সত্যিই নাছোড়বান্দা!

স্কুপহুপ.কম অবলম্বনে

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।